HomeSuccess Storiesমাত্র আঠারো বছর বয়সে ঝগড়া করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে চলে গিয়েছিলেন মুম্বই,...

মাত্র আঠারো বছর বয়সে ঝগড়া করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে চলে গিয়েছিলেন মুম্বই, আজ তাঁর কোম্পানি খাদিম! বাটার মত আন্তর্জাতিক সংস্থার সাথে টেক্কা দিচ্ছে!

কিছু কিছু ব্যতিক্রমী গল্প থাকে যা আমাদের জীবনে এগিয়ে যাওয়ার মন্ত্রের মত কাজ করে। জীবনে ইচ্ছাশক্তি এবং পরিশ্রমের দ্বারা যে সমস্ত সফলতা সম্ভব একথা প্রমাণ করেছেন অনেক বড় বড় ব্যক্তিত্বরা। তাদের মধ্যে সত্য প্রসাদ রায় বর্মন একজন যিনি বর্তমানে একজন সফল ব্যবসায়ী । সমস্তটাই নিজের ইচ্ছাশক্তির দ্বারা তিনি তৈরি করেছেন তিল তিল করে। মাত্র ১৮ বছর বয়সে শুরুটা করেছিলেন একটা ছোট্ট জুতোর দোকান দিয়ে তারপর আজ তার ব্যবসা গিয়ে পৌঁছেছে হাজার কোটিতে। বিখ্যাত ভারতীয় জুতো প্রস্তুতকারক কোম্পানির মালিক এই সত্য প্রসাদ রায় বর্মন। যাঁর কোম্পানি বর্তমানে টেক্কা দিচ্ছে বাটার মত বিখ্যাত আন্তর্জাতিক কোম্পানিকে । এখন খাদিম ইন্ডিয়ার বাজার পৌঁছে গিয়েছে ১৩০০ কোটি টাকায়।

আরও পড়ুন: লিখিত পরীক্ষা নেই, শুধুমাত্র ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে প্রার্থী নিয়োগ হবে জেলার বিডিও অফিসগুলোতে!

শুরুটা এরকম ছিলনা। গল্পটা শুরু হয়েছিল কলকাতা থেকে। সত্যপ্রসাদ রায় বর্মণ বাড়ি একদিন ঝগড়া করে ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন বাড়ি। তারপর গিয়ে পৌঁছেছিলেন মুম্বাইতে। ১৯৬৫ সালে অবশেষে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন পুনরায় বাড়ি ফিরে যাওয়ার। তারপর চিৎপুরে কে এম খাদিমের একটি ছোট দোকান কিনে নিয়ে নিজের ব্যাবসার শুরুটা করেছিলেন তিনি।তারপর থেকে এই বিশাল বিপুল সম্পত্তির মালিকানা আজ ওনার একার। সমস্ত সাম্রাজ্য নিজের কষ্টের দ্বারা অর্জিত । প্রথমেই তিনি বুঝেছিলেন মানুষের কাছে অধিক পৌঁছতে হলে সস্তা কিন্তু ভালো মানের জুতো দরকার। সত্য প্রসাদ রায় তাঁর এই ভাবনার দ্বারাই পরে সফলতা লাভ করেছিলেন। আজ তাঁর ব্যবসা পূর্ব ভারত থেকে মধ্যে ভারত পর্যন্ত রমরমা বাণিজ্য চালাচ্ছে।

সালটা ছিল ১৯৮০ যখন কোম্পানির আরও শ্রীবৃদ্ধি ঘটতে থাকে। সিদ্ধার্থ রায় বর্মন, সত্য প্রসাদের বড়ো ছেলে যোগ দিয়েছিলেন বাবার কোম্পানিতে। এই কোম্পানি তার সাব-ব্র্যান্ডগুলিকে একটি পূর্ণাঙ্গ প্রিমিয়াম ব্র্যান্ডে রূপান্তর করতে কাজ করছে।

আরও পড়ুন: মাত্র ১০ বছর বয়সে একটি গোটা কোম্পানির মালিক এই বিস্ময় বালক! কিন্তু কিভাবে সম্ভব হলো এই সফর?

প্রধান লক্ষ্য হলো, খাদিম ইন্ডিয়া লিমিটেডের মূল ব্র্যান্ডের বৃদ্ধি ঘটানো। ব্রিটিশ ওয়াকার, শ্যারন, ল্যাজার্ড, ক্লিও এবং সফটটাচ সহ খাদিমের মোট নয়টি উপ-ব্র্যান্ড রয়েছে এখনো পর্যন্ত। এইভাবেই নিজের লক্ষ্যে নিজের একমাত্র ইচ্ছে ক্ষমতার দ্বারা উপনীত হয়েছিলেন সত্য প্রসাদ। যে গল্প আজ অনুপ্রেরণা যোগায় কোটি কোটি মানুষকে।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments